জীবনে এমন কত বিচ্ছেদ, কত মৃত্যু আছে, ফিরিয়া লাভ কি? পৃথিবীতে কে কাহার…

ভারতের টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। ছোট পোশাক পড়ে সানিয়া মির্জাকে মাঠে নামতে হয়। সানিয়ার ছোট পোশাক বির্তক আর্ন্তজাতিক মিডিয়ায় বেশ টনিক জুগিয়েছে। চায়ের কাপে ঝড় তুলেছে ভারত-পাকিস্তানেও। সানিয়ার ছোট পোশাক বির্তক চোখ এড়ায়নি ডা. জাকির নায়েকের। সানিয়ার পোশাক হালাল-হারামের প্রশ্নে ধর্ম গবেষক ডা. জাকির নায়েকও বিভিন্ন সভা সেমিনারে নানা প্রশ্নের মুখোমুখি হয়েছেন। প্রশ্নবানে জর্জরিত জাকির নায়েক মুখ খুলতে বাধ্য হয়েছেন।
তিনি বলেছেন, মিডিয়ায় একটি নতুন খবর এসেছে। আলেমরা ফতোয়া জারি করেছেন। সানিয়া মির্জা যে পোশাক পরে ছোট র্স্কাট সেটি হারাম। চারদিকে হইচই পড়া সংবাদে আলেমরাও বললেন এটি হারাম ও নিষিদ্ধ। বিপরীতে অমুসলিমরা ভাবতে লাগলেন, একজন মহিলা খেলাধুলা করছে আর ধর্ম তাতে বাধা দিচ্ছে? আমার মনে হলো, সানিয়ার ছোট পোশাক বির্তকটা ইসলামকে খাটো করছে। সানিয়া বিতর্কের উত্তাল সময়ে আমি আর্ন্তজাতিক মিডিয়াকে প্রশ্ন করলাম, আপনারা সানিয়ার ছোট পোশাকের ব্যাপারে মুসলিম আলেম, ইসলাম গবেষকদের কেন হালাল-হারামের ব্যাপরে জিজ্ঞাস করছেন? সানিয়া তো রেকিং-এ ৩৪ নম্বর। সেরেনা উলিয়াম তো রেকিং-এ ১ নম্বর। সেরেনার পোশাক ভুল না ঠিক এই প্রশ্নটি আপনারা কেন একজন খ্রিস্টান ধর্মযাজককে করছেন না? সেরেনা উলিয়ামসহ আগের প্রায় সব খেলোয়াড়রাই খ্রিস্টান। আপনারা খ্রিস্টান ধর্মযাজক বা ভ্যাটিকেন সিটির পোপের কাছে প্রশ্ন করুন তাদের পোশাক ঠিক না ভুল?
বাইবেলের বুক অব ডিওটরনমী, অধ্যায় ২২, অনুচ্ছেদ ৫ আছে মহিলারা এমন পোশাক পরবে না, যা পুরুষের মতো। পুরুষরাও মহিলাদের মতো পোশাক পরবে না। যারা এমনটি পরবে তারা প্রভুর ঘৃণার পাত্র। আরও বলা আছে, মহিলারা শালীন পোশাক পরবে। হিন্দুদের ‘বেদ বলছে, মহিলার পুরুষের মতো পোশাক পরবে না। এবং পুরুষরাও তাদের স্ত্রীদের পোশাক পরবে না।’ ঋগবেদের ৮/অনুচ্ছেদ : ৮৫, পরিচ্ছদ : ৩০। আরও বলছে মহান ইশ্বর তোমাদের নারী বানিয়েছেন। তোমাদের দৃষ্টি সংযত রাখবে। পর্দার আড়ালে থাকবে। ঋগবেদের ৮/অনুচ্ছেদ : ৩৩, পরিচ্ছদ : ১৯।
তার মানে খ্রিস্টান ও হিন্দু ধর্মেও র্স্কাট পরা হারাম ও নিষিদ্ধ। ডা. জাকির নায়েক বক্তৃতার শেষে আশা ব্যক্ত করেছেন, সানিয়া মির্জা হয়তো একদিন হারাম পোশাক ছেড়ে, হালাল বা শালীন পোশাক পরে খেলবেনে। সূত্র : পিস টিভি
বলার বিষয় হলো, বিশ্ব মিডিয়াকে প্রশ্নবানে আক্রান্ত করে বক্তৃতার ইতি টেনেছেন জাকির নায়েক। সানিয়ার ছোট পোশাক হালাল-হারামের প্রশ্নে এই বক্তৃতায় কোরআন-হাদিসের কোন উদ্ধৃতি উপস্থাপন করেননি। আমরা পাঠককে ঠকাতে চায় না। শুধু একজন সানিয়া মির্জা নয় সব নারী-পুরুষের পোশাক বিষয়ে কোরআনের ভাষ্য হলো, হে নবী! আপনার পত্নী, কন্যা এবং মোমিনগণের পত্নীগণকে বলুন, যেন তারা তাদের চাদর নিজেদের উপর ঝুলিয়ে নেয়। এতদ্বারা তাহাদের পরিচয় অত্যন্ত সহজ হইবে এবং তাদের কষ্ট দেওয়া হইবে না। বস্তুত: আল্লাহ অতীব ক্ষমাশীল, পরম দয়াময়। (সূরা আহযাব : ৬০)
কোরআন আরও বলেছে, আর মোমিন নারীদেরকে বল, তারা তাদরে দৃষ্টি সংযত রাখবে এবং তাদের লজ্জা-স্থানের হেফাজত করবে। আর যা সাধারণত প্রকাশ পায় তা ছাড়া তাদের সৌর্ন্দয তারা প্রকাশ করবে না। তারা যেন তাদের ওড়না দিয়ে বক্ষদেশ আবৃত করে রাখে। (সুরা নুর) আল্লামা ইবনে তাইমিয়া রাহ. বলেন-‘সঠিকতর সিদ্ধান্ত এই যে, নারীর জন্য পরপুরুষের সামনে দুই হাত, দুই পা ও মুখমন্ডল খোলা রাখার অবকাশ নেই। মাজমুউল ফাতাওয়া ২২/১১৪
পুনশ্চ : সানিয়া মির্জার ছোট পোশাক বির্তকের ঘটনা সম্প্রতিক নয়। এই ছোট বির্তকের অবসান কবে হবে জানি না। তবে মুসলিম মা-বোনেরা বরাবরই পোশাকে শালীনতার পরিচয় দিয়ে যাবেন এটাই প্রত্যাশা।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: