জীবনে এমন কত বিচ্ছেদ, কত মৃত্যু আছে, ফিরিয়া লাভ কি? পৃথিবীতে কে কাহার…

দাঁত থাকতেই দাঁতের মর্যাদা আরও বেড়ে গেল৷ খাদ্যবস্তুকে গুঁড়িয়ে দেওয়া এবং হাসিকে বিশেষ মাত্রা দেওয়া ছাড়াও দাঁতের যে আরও কিছু ভূমিকা আছে, এতদিনে তা জানা গেল৷ ‘এলসা’ নামের এক ব্রিটিশ সমীক্ষক সংস্হা জানাচেছ, দাঁত পড়ে যাওয়া মানুষের স্মৃতিশক্তি বেশ কিছুটা কম৷ হাঁটার গতিও দন্তময়দের তুলনায় অনেকটাই শ্লথ৷ সমীক্ষাটি সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে ‘জার্নাল অফ দ্য গেরিয়াট্রিক্স সোসাইটি’ পত্রিকায়৷
গবেষকরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়েছেন ৩,১৬৬ জন ষাটোধর্র্ব মানুষের উপর৷ তাঁদের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপট, শিক্ষা-সংস্কৃতি, খাদ্যাভ্যাস, শারীরিক-মানসিক সমস্যা ইত্যাদি বিষয়গুলি আলাদাভাবে বিন্যস্ত করেই সমীক্ষাটি চালানো হয়েছে৷ তাতেই উঠে এসেছে অজানা সব তথ্য৷ দেখা যাচেছ, যিনি যত বেশি সংখ্যক দাঁত হারিয়েছেন, তাঁর স্মৃতি ফিকে হয়েছে তত বেশি৷ হাঁটার ক্ষেত্রেও একই ব্যাপার৷ কমে যাওয়া দাঁতের সংখ্যার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কমেছে গতিবেগ৷ এদিকে সমীক্ষকরা সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, এক্ষেত্রে বয়সটা কিন্ত্ত কোনও ‘ফ্যাক্টর’ নয়৷ আর নয় বলেই, কোনও ষাট-পঁয়ষট্টি বছরের দন্তহীন প্রৌঢ়কে স্মৃতিশক্তির নিরিখে নাকি অনায়াসে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেন কোনও অশীতিপর ‘দাঁতাল’ বৃও৷ সমীক্ষকদের দাবি সত্যি বলে ধরলে, অন্তত ১০ শতাংশ বেশি এগিয়ে থাকার কথা না কি তাঁরই৷
কিন্ত্ত, এমন হওয়ার কারণটা কী? দাঁতের অস্তিত্বের সঙ্গে মনে রাখার ক্ষমতা বা জোরে হাঁটতে পারার বৈজ্ঞানিক যুক্তিসূত্রটা কোথায়? উত্তর মেলেনি৷ গবেষণা এখনও চলছে৷ সমীক্ষক দলের প্রধান ড. গিয়রজিওস টিসাকোস বরং উল্টো করে বলেছেন, “দাঁত পড়ে যাওয়াটা শারীরিক-মানসিক ক্ষমতা কমে আসারই একটা বহির্লক্ষণ মাত্র৷”
এখন পরিস্হিতি যা দাঁড়াল, দাঁত না খোয়ানোর লড়াইটা বোধহয় দাঁতে দাঁত চেপেই চালিয়ে যেতে হবে জীবনভর৷

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: