জীবনে এমন কত বিচ্ছেদ, কত মৃত্যু আছে, ফিরিয়া লাভ কি? পৃথিবীতে কে কাহার…

আত্মহত্যায় প্ররোচিত করতে মার্টিন লুথার কিংকে দেওয়া মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার (এফবিআই) একটি চিঠি জনসম্মুখে প্রকাশিত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে মানবাধিকার আন্দোলনের পথিকৃৎ কিংকে ওই চিঠিতে ‘শয়তান’ ও ‘উন্মাদ জানোয়ার’ বলে গালিও দিয়েছিল এফবিআই।

১৯৬৪ সালে শান্তিতে নোবেল পাওয়ার মাত্র কয়েক সপ্তাহ আগে ওই চিঠিটি লুথার কিংকে পাঠানো হয়। চিঠিটি লিখেছিলেন এফবিআইয়ের তৎকালীন পরিচালক জে এডগার হুভারের ডেপুটি।
চিঠির বিষয়টি আগেও আলোচিত হয়েছে। ওই চিঠিটিকে ‘আত্মহত্যার চিঠি’ (সুইসাইড লেটার) বলে অভিহিত করা হয়েছিল। তবে এই প্রথম চিঠিটি প্রকাশিত হলো।
নিউইয়র্ক টাইমস ম্যাগাজিনে পুরো চিঠিটি ছাপা হয়েছে।
এর আগে ইয়েল ইউনিভার্সিটির ইতিহাসবিদ বেভারলি গেজ প্রথম এই চিঠির সন্ধান দিয়েছিলেন। হুভারের ওপর লেখা একটি বই নিয়ে গবেষণা করার সময় চিঠিটির বিষয়ে জানতে পারেন গেজ।
গেজ জানান, চিঠির ভাষা থেকে এটাই প্রতীয়মান হয় যে, এফবিআই পরিচালক হুভার লুথারের ব্যক্তিগত সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে তাকে দমাতে চেয়েছিলেন।
গেজ বলেন, ‘কিংয়ের যৌনজীবনকে পুঁজি করে হাইলাইট করতে চেয়েছিল এফবিআই।’
সংস্থাটি কিংকে লিখেছিল, ‘এখন আপনার জন্য একটাই রাস্তা খোলা। জাতির কাছে আপনার অস্বাভাবিক ও প্রতারণামূলক নগ্ন চরিত্র ফাঁস করার আগেই আপনার কেটে পড়া উচিত।’
প্রসঙ্গত, ১৯৬৮ সালের ৪ এপ্রিল আততায়ীর গুলিতে নিহত হন মার্টিন লুথার কিং।
Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: