জীবনে এমন কত বিচ্ছেদ, কত মৃত্যু আছে, ফিরিয়া লাভ কি? পৃথিবীতে কে কাহার…

শিফটে চাকরি করেন ভালো কথা। তবে শিফটা বদলানোর ক্ষেত্রে আপনাকে বুঝে-শোনে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। নতুবা এই শিফট বদলিই কারণেই আপনার ব্রেইন সমস্যা তৈরি হতে পারে। হতে পারে নানান মানসিক রোগ। সম্প্রতি ফ্রান্সের বিজ্ঞানীদের নতুন এক গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে।

গবেষণায় বলা হয়, অনিয়মিত শিফট বদলানোর কারণে ব্রেইনের মারাত্মক ক্ষতি ও মানসিক সমস্যার তৈরি হয়। শিফট বদলানোর কারণে শরীরের জৈবিক ঘড়িতে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। আর তা এমন স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি করে যে, হার্টে সমস্যা এমনকি ক্যান্সারও হতে পারে।
বিজ্ঞানীরা তাদের গবেষণায়, শিফট বদলানোর সঙ্গে ব্রেইন ফাংশনের নতুন সংযোগ আবিষ্কার করেছেন। বিমেষ করে যারা সকাল, দুপুর এবং রাতের শিফট বদল করে কাজ করে তাদের মধ্যে।
ফ্রান্সে বসবাসরত তিন হাজার লোকের মধ্যে গবেষণা চালিয়ে বিজ্ঞানীরা দেখেছেন যে, যারা শিফট বদল করে কাজ করেন তাদের ব্রেইন ক্রমাগত অবনতির দিকে যায়। যারা নিয়মিত সূচিতে কাজ করেন তাদের সঙ্গে শিফট বদলকারীদের মধ্যে অনেক জ্ঞানগত পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়।
তউলোস ও সোয়ানসা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা বলেন, ‘‘যারা অনিয়মিত শিফটে ১০ বছর কাজ করে তাদের জ্ঞান, যারা নিয়মিতভাবে ৬ বা সাড়ে ৬ বছর কাজ করে তাদের সমান হতে পারে না।’’
ফ্রান্সের গবেষণাটি ১৯৯৬, ২০০১ ও ২০০৬ সালের ভিতর বিভিন্ন পর্যায়ে এক হাজার ২০০ চাকরিজীবির ওপর পরিচালিত হয়। এদের পাঁচজনের একজন সকাল, দুপুর ও রাতে শিফট বদল করে চাকরি করতেন।
গবেষণায় বলা হয়, ‘‘যারা নিয়মিত দীর্ঘ সময় শিফট বদল করে কাজ করেন তাদের ব্রেইন সমস্যায় ভুগতে হয়েছে। এটি ব্রেইনের কাঠামোহত ক্ষতিও ডেকে আনতে পারে। অতিরিক্ত হরমোন উৎপাদনে চাপ দেয়ার কারণে এটা ঘটতে পারে।’’
এতে বলা হয়, ‘‘যারা দিন কিংবা রাতে শিফট বদল করেন তাদের ক্ষেত্রেও একই সমস্যা হতে পারে। যারা রাতে কাজ করেন তাদের শরীরে ভিটামিন ডি এর ঘাটতি তৈরি হয়। মস্তিষ্কের সঙ্গে ভিটামিন ডি এর যোগসূত্র রয়েছে।’’
বৃটিশ মেডিক্যাল জার্ণালে ড. জিন ক্লাউড মারকুই লিখেছেন, ‘‘গবেষণায় চাকরিজীবীদের জ্ঞানগত তফাতের যে বিষয়টি উঠে এসেছে, তা কেবল ব্যক্তি নয় সমাজের জন্যও উদ্বেগের। বিশেষ করে কোন নিয়ম ছাড়াই রাতের বেলায় চাকরির সুযোগ তৈরি করা।’’
ক্লাউড মারকুই বলেন, ‘‘এ ধরনের অনিয়ম শিফটে চাকরিজীবীদের ক্ষতিগ্রস্ত করবে। দৈনন্দিন কাজ যারা করে তাদের সঙ্গে শিফট বদলকারীদের জ্ঞানগত তফাত তৈরি হবে।’’
তিনি বলেন, ‘‘নতুন গবেষণায় এটা গুরুত্ব পাচ্ছে যে, শিফটে চাকরি বদলকারীদের চিকিৎসকদের পরামর্শ সহায়তা নেয়া প্রয়োজন। বিশেষ করে যারা ১০ বছর বা তারো বেশি সময় কোনো শিফটে কাজ করছেন।’’
Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: