জীবনে এমন কত বিচ্ছেদ, কত মৃত্যু আছে, ফিরিয়া লাভ কি? পৃথিবীতে কে কাহার…

প্রফেসর আবু তাহের মজুমদার
এমন প্রাণ উদাস করা গানও হয়ত একদিন কোথাও হারিয়ে যাবে! কেউই হয়ত আর গাইবে না ‘মন মাঝি তোর বইঠা নেড়ে, আমি আর বাইতে পারলাম নারে’ আব্দুল আলীমের মত উদাত্ত কণ্ঠে কেউ কি আর হঠাৎ বহমান প্রবাহের কূলে গিয়ে আপন পর ভুলে দূর-দিগন্তের দিকে তাকিয়ে আর কেউ কি গেয়ে উঠবে, ‘নদীর কূল নাই কিনার নাইরে/আমি কোন কূল হতে কোন কূলে যাব ভেবে না পাইরে!’ কোন বাপের বাড়ির জন্য কাতর তরুণী গ্রামীণ বধূ কি আর কলসি কাঁধে নদীর কূলে দাঁড়িয়ে পালতোলা কোন নৌকার দিকে তাকিয়ে মাঝিকে উদ্দেশ্য করে জলছলছল চোখে হৃদয় মোচড়ানো সুরে গেয়ে উঠবে ‘ওরে ও অচীন।। দেশের মাঝি ভাইয়া/মা-বাবারে কইও নাইওর নিতো আইয়া’। আমাদের এই সোনার দেশ অগণিত নদ-নদী আর খাল-বিলের দেশ! আমাদের এ দেশ এখনো শত সহস্র জলাশয়-জলাধারের দেশ! কিন্তু কি দুর্ভাগ্য আমাদের! আমরা অসহায়ভাবে আত্মসর্পিত অসংখ্য বর্বর প্রাণঘাতী নদীর ছিনতাইকারীর হাতে। নদীর তস্করের হাতে। এই বর্বর তস্কররা শক্তিশালী মলম পার্টিও বটে। এই মলম পার্টিরা বিষাক্ত টাকা দিয়ে দলে দলে আমাদের ক্ষমতাধর চক্ষুস্মানদের এসব ব্যাপারে একেবারে অন্ধ তো বটেই, একেবারে অচেতন ও করে রেখেছে। সবচেয়ে দুর্ভাগ্যজনক হলো নদ-নদীর বুকে নিঃলজ্জ আগ্রাসনের বিজয় পতাকা যারা ওড়াচ্ছে তাদের কেউই অন্ধ বা বধির নয়। একেবারে যে বিবেকহীন তাও বলা যাবে না। একেবারে কম, বোঝেন বা অত্যন্ত বেশি বোঝেন তাও নয়। জীবন-যাপন প্রণালী দেখে এবং আর্থিক সাফল্যের বহর দেখে সহজেই বোঝা যায় এই নদীদস্যুরা দুয়ে দুয়ে শুধু চার নয়, পাঁচ-ছয়-সাত-আট-নয়-দশও যে করা যায় তা খুব ভালোভাবেই বোঝেন। লুণ্ঠিত ভূমির ওপর তাদের ঘর-বাড়ির জৌলুস দেখে যে কারো নিকটই প্রতীয়মান হবে যে, অত্যন্ত সচেতনতা ও সাহসীকতার সঙ্গে আগ্রাসন ও লোভ-লালসার লাল ঘোড়ায় চড়ে তারা আরো গ্রাস করার দিগন্তের দিকে দূরন্তবেগে এগিয়ে চলেছে। তাই তো আশংকা জেগেছিল মনে এদের হাতে বুঝিবা ঢেউয়ের দোলায় দুলে দুলে কোন মাঝি বুঝি আর গাইবার সুযোগ পাবে না। ‘মন মাঝি তোর বৈঠা নেরে, আমি আর বাইতে পারলাম না।’

এ দৃশ্য শুধু ঢাকার আশে-পাশেই নয়, ঢাকার বাইরেও বিভিন্ন জেলা উপজেলার নদ-নদী এবং খাল-বিলেরও আমরা যারা সাহিত্য রস পিপাসু রবীন্দ্র এবং জীবনানন্দ ভক্ত এবং তাদের প্রতি নিবেদিত চিত্ত তাদের প্রাণটা কেঁদে ওঠে যখন দেখি হার্ডিং ব্রিজের নিচ দিয়ে গরুর গাড়ি কিংবা মহিষের গাড়ি চলছে। যখন দেখি জীবনানন্দের ধানসিঁড়ি নদীটিতে মরু পথে তার ধারা হারিয়ে ফেলতে চলেছে তখনতো কেঁদে ওঠে আমাদের প্রাণ। কি সৌভাগ্য যে সুমহান বিশ্বকবি এবং জীবনানন্দ আজ বেঁচে নেই। কিন্তু আমরা তো সংখ্যালঘু! ভাবুন তো যারা সংখ্যাগুরু, পানি নির্ভরশীল যাদের কৃষি কাজ এবং জীবন এবং যাদের ওপর নির্ভরশীল আমাদের জীবন, তাদের অবস্থাও একবার ভেবে দেখুন! এই জলাভূমি আগ্রাসন ভূমি আগ্রাসনের মত প্রায় সারা দেশেই মহামারির আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। দেশের নেতৃস্থানীয় পত্র-পত্রিকায় ছবি দেখে দেখে অভিশাপ দেয়া আর দীর্ঘশ্বাস ফেলা ছাড়া আমার মত বা আমাদের মত সাধারণ মানুষের আর কি বা করার আছে! হ্যাঁ, যারা এর বিরুদ্ধে প্রবলভাবে প্রতিবাদ করেছেন, এখনো করছেন এবং করে চলেছেন তাদের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেছি বহু আগেই। নদ-নদী, খাল-বিলের আগ্রাসী ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধবাদীদের উদ্দেশ্য করে বলছি, আমিও তোমাদেরই দলের লোক।

এই দস্যুতা সত্ত্বেও আমাদের এই সব গান গাওয়া কি হারিয়ে যাবে? ‘নদীর কুল নাই রে, কিনারা নাই রে’, ‘মন মাঝি তোর বৈঠা নেরে, পদ্মার ঢেউরে’। আর কি গাওয়া হবে না সেই প্রাণ-মন-হৃদয় ভরা উদাত্ত কণ্ঠে। না, কিছুদিন ধরে আর দীর্ঘশ্বাস ফেলি না মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কঠোর নির্দেশে আগ্রাসী দস্যুদের বিরুদ্ধে যে শপথ দৃঢ় অভিযান শুরু হয়েছে তার আশ্বাসে সবার মনই ভরে উঠেছে। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আমাদের মহামান্য হাইকোর্টের যুগান্তকারী দিক-নির্দেশনা। আমাদের নদ-নদীতে দূরন্তবেগে আবার মাঝিরা বেয়ে যাবে প্রতিবন্ধকতাহীন তাদের পালতোলা মন পবনের নাও। নদ-নদীর দুই কূলে ধ্বনিত প্রতিধ্বনিত হতে থাকবে ‘নদীর কূল নাইরে কিনার নাই।’ আমরা আবার শুনতে থাকবো, ‘ও নদীরে একটি কথাই শুধাই শুধু তোমারে, বলো কোথায় তোমার দেশ, তোমার নেইকি চলার শেষ?’

[লেখক : ডিনঃ কলা, মানবিক এবং সমাজ বিজ্ঞান বিভাগ; বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি (বিইউবিটি) মিরপুর, ঢাকা]

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: